বুধবার , এপ্রিল ৮ ২০২০
সংবাদ শিরোনাম
Home » সারাদেশ » রাজশাহী » উল্লাপাড়ায় অযত্ন অবহেলায় পড়ে আছে শহীদ মিনার

উল্লাপাড়ায় অযত্ন অবহেলায় পড়ে আছে শহীদ মিনার

সেলিম রেজা, নিজস্ব প্রতিনিধি সিরাজগঞ্জঃ রক্ষণাবেক্ষনের অভাবে উল্লাপাড়ার চড়িয়া মধ্যপাড়া গ্রামে অযত্ন অবহেলায় পড়ে আছে শহীদ মিনার। এই স্থানে ৭১ সালের ২৫ এপ্রিল পাক হানদার বাহিনী এলাকার বিভিন্ন গ্রাম থেকে সাধারন মানুষকে ধরে এনে এক সাথে ১৫০ জনকে সারিবদ্ধভাবে দাঁড় করিয়ে বুলেট নিক্ষেপ করে নির্মমভাবে হত্যা করে। স্বাধীনতার পরবর্তী সময়ে এই স্থান কে স্মরণীয় করে রাখতে গ্রামের আব্দুল হাকিমের উদ্যোগে, তার নিজস্ব জায়গায় ২০০৮ সালে সরকারি বরাদ্দের অর্থ দিয়ে শহীদ মিনারটি নির্মান করেছেন। ব্যক্তিগত জায়গা হলেও প্রথম কয়েক বছর এখানে একুশে ফেব্রুয়ারি বা অপর রাষ্ট্রীয় দিবসগুলোতে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হতো। বর্তমানে অযত্নে শহীদ মিনারের কিছু অংশের টাইলস ভেঙ্গে গেছে। এর পাদদেশে ধুলো ময়লা জমেছে। শহিদ মিনারের চারপাশে ও সিঁড়ির মাঝ দিয়ে আগাছা জন্মেছে। শহীদ মিনারের এই আগাছাগুলোও ছাফ করা হয়না। ১৯ ফেব্রুয়ারি বুধবার সরেজমিনে শহীদ মিনার দেখতে গেলে মিনারটির এমন অবস্থাই চোখে পড়ে। অথচ একদিন পড়েই ভাষা শহীদদের স্মরণে সারা দেশে পালিত হবে মহান একুশে ফেব্রুয়ারি। শহীদ মিনার স্থলে উপস্থিত থাকা চড়িয়া গ্রামের আবু তাহের, আকাল উদ্দিন খা, গোলজার হোসেন জানান, বেশ কয়েক বছর ধরে এই শহীদ মিনারটিতে জাতীয় দিবসগুলোতে ব্যক্তিগত বা সমষ্টিগতভাবে কোন ফুল দেওয়া হয় না। আয়োজন করা হয় না কোন অনুষ্ঠানের। এ ব্যাপারে শহীদ মিনারের নির্মাতা আব্দুল হাকিমের সঙ্গে যোগাযোগ করলে, তিনি জানান শহীদ মিনারটি কিছটুা ক্ষতিগ্রস্থ হলেও এখানে একুশে ফেব্রুয়ারির দিন বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয় এবং এখানে অনুষ্ঠানও করা হয়। শহীদ মিনারের আগাছাগুলো অনুষ্ঠানের পূর্বেই পরিস্কার করা হবে। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আরিফুজ্জামান জানান, কোন অবস্থাতেই শহীদ মিনার কোন অযত্নে অবহেলায় রাখা যাবে না। বিষয়টি তিনি খতিয়ে দেখবেন।

আরও সংবাদ

তাড়াশে করোনা উপসর্গ নিয়ে পোশাক শ্রমিকের মৃত্যু নমূনা সংগ্রহ ১০ বাড়ি লকডাউন

সেলিম রেজা, নিজস্ব প্রতিনিধি সিরাজগঞ্জঃ সিরাজগঞ্জের তাড়াশে উপজেলায় করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর উপসর্গ জ্বর, সর্দি …