সোমবার , মে ২৫ ২০২০
সংবাদ শিরোনাম
Home » মতামত » ক্লান্তিহীন অবিরাম ছুটে চলা নিয়ামতপুরে ইউএনও জয়া মারিয়া পেরেরা

ক্লান্তিহীন অবিরাম ছুটে চলা নিয়ামতপুরে ইউএনও জয়া মারিয়া পেরেরা

এম,এ রাজ্জাক রাজশাহী ব্যুরো চীফ প্রধানঃ ক্লান্তিহীন অবিরাম ছুটে চলা নিয়ামতপুর উপজেলার ইউএনও জয়া মারিয়া পেরেরা অসহায় গরিব দুঃখী মানুষের পার্শ্বে থেকে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

মাানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য, একটু সহানুভূতি কি- মানুষ পেতে পারে না- ও বন্ধু- মানুষ মানুষের জন্য। উপমহাদেশের প্রখ্যাত কণ্ঠশিল্পী ভূপেন হাজারিকার এই বিখ্যাত গানের অক্ষর, প্রতিটি শব্দ যেন মিশে আছে নওগাঁ জেলার নিয়ামতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়া মারিয়া পেরেরা এর কার্যক্রমে। সত্যি কথা বলতে কি- স্যার যে এখানে সাময়িক সময়ের জন্য এসেছেন, এটা বিশ্বাস করতে যেন কষ্ট হয়। মনে হয় যেন ইউএনও মহোদয় এই উপজেলারই সন্তান।

বিশ্ব মহামারি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত বাংলাদেশের এই উপজেলার মানুষ যেন কোন কালে পুন্যের কাজ করেছিল। তারই উপহার হিসাবে সৃষ্ঠিকর্তা মহান রব্বুল আলআমিন এই উপজেলায়জয়া মারিয়া পেরেরা স্যারকে পাঠিয়েছেন। কোন ক্লান্তি যেন ছুতে পারেনা স্যারকে। দিন নাই, রাত নাই, শুক্রবার নাই, শনিবার নাই ছুটে বেড়ান উপজেলা সদরসহ প্রত্যন্ত এলাকায়। স্যারকে মাঝে মাঝে মনে হয় যেন একটি যন্ত্র। যে করোনা প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে কাউকে রেহাই দেয় না।

সেই করোনা যেন কোন আতংকই মনে না করে জীবনের ঝুকি নিয়ে ভয় জয় করে ইউএনও স্যার সারাক্ষন ছুটছেন। স্যার ত্রান বিতরণের ক্ষেত্রেও অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আমার জানামতে স্যার সমাজের এমন শ্রেনীর লোকদের খাদ্য সামগ্রী গোপনে বিতরণ করেছেন যারা কারো কাছে হাত পাততে পারেন না।

আবার লাইনেও দাড়াতে পারেন না। এবং ছিন্নমূল, অসহায়,কৃষক, শ্রমিক দারিদ্র্য ও বিভিন্ন বর্ণের মানুষের মাঝে ত্রাণ দিয়ে যাচ্ছেন। মহান সৃষ্টি কর্তা তাহার এবং তাহার পরিবারকে হেফাজত করেন।

আরও সংবাদ

‘দৈনিক শিক্ষা তথ্য’ পরিবারের পক্ষ থেকে লক্ষ্মীপুর জেলাবাসীকে ঈদ-উল ফিতরের শুভেচ্ছা

শিক্ষা তথ্যঃ ঈদুল ফিতর মুসলিম জাহানের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব। মাসব্যাপী সিয়াম সাধনার পর খুশি …