1. [email protected] : Gk Russel : Gk Russel
  2. [email protected] : Nazrul Islam : Nazrul Islam
  3. [email protected] : pbangladesh :
পটুয়াখালী-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী আবুল হোসেন সম্পর্কে সাবেক এমপি পুত্র ও ইউপি চেয়ারম্যান যা বললেন - শিক্ষা তথ্য
বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৮:০৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
গঙ্গাচড়া মডেল থানায় এক নারী কে ১০ ঘণ্টা আটক রেখে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে শ্রীপুরে আল-আমিন ট্রাস্টের উদ্যোগে এ+প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠিত বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি, নিরাপদ সমাজ গড়ি কর্তৃপক্ষ কর্তৃক মাধ্যমিক পর্যায়ের স্কুল,মাদ্রাসা ও কলেজে পেনশন স্কিম বাধ্যতামূলক করে দেওয়ার চিঠি প্রত্যাহারের নির্দেশ hello world উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দশমিনায় তাতী লীগের সাধারন সম্পাদক মো. ইকবাল হোসেন বাউফলে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মোশারেফ হোসেন খান শ্রমিকবাহী পিকআপ উল্টে নিহত ১ আহত ৭ রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে হাবিবুর রহমান নির্বাচিত বকশীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী মোঃ নজরুল ইসলাম সাত্তার ,মোঃ শাহজালাল ও মোছাঃ জহুরা বেগম।

পটুয়াখালী-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী আবুল হোসেন সম্পর্কে সাবেক এমপি পুত্র ও ইউপি চেয়ারম্যান যা বললেন

সংবাদদাতা :
  • আপডেটের সময় : শনিবার, ৭ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৯২ বার দেখা হয়েছে

সাজ্জাদ আহমেদ মাসুদ, গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
পটুয়াখালীর গলাচিপায় গত বৃহস্পতি, শুক্র ও শনিবার (৫, ৬ ও ৭ অক্টোবর) টানা তিন দিন চিকনিকান্দি, গলাচিপা সদর ও রতনদী তালতলী ইউনিয়নের বিভিন্ন বাজারে গণসংযোগ, পথসভা এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সাথে মতবিনিময় করেন আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পটুয়াখালী-৩ (গলাচিপা-দশমিনা) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক বিজিবির মহাপরিচালক এবং রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) আবুল হোসেন এনডিসি, পিএসসি, পিইঞ্জিনিয়ার।

গত বৃহস্পতিবার (৫ অক্টোবর) চিকনিকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কর্তৃক আয়োজিত এক পথসভায় লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) আবুল হোসেন সম্পর্কে বৃহত্তর গলাচিপা থানা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও সাবেক এমসি প্রয়াত আব্দুল বারেক মিয়ার ছেলে ও গলাচিপা পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মু. মুশতাক হোসেন শামীম বলেন, ‘আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পটুয়াখালী-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী আবুল হোসেনকে কেন আমি সমর্থন দিয়েছি? এর কারণ হলো- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারা দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হওয়া সত্ত্বেও গত পাঁচ বছরে গলাচিপা ও দশমিনায় তেমন কোন উন্নয়ন হয় নাই।

এই জনপদে আবুল হোসেনের মতো উচ্চ পর্যায়ের যোগ্যতা সম্পন্ন একজন কর্মীবান্ধব নেতা এমপি হলে আমাদের অঞ্চলে অভাবনীয় উন্নয়ন হবে। এজন্য আজ আমরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ঐক্যবদ্ধ হয়ে আবুল হোসেনের সমর্থনে এই পথসভায় যোগ দিয়েছি। আমার বাবা মরহুম আব্দুল বারেক মিয়া দীর্ঘ ২২ বছর চিকনিকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও দুইবার এমপি ছিলেন। আমার বড় ভাই মরহুম এরশাদ হোসেন বাদল এই ইউনিয়নে দুইবার জনপ্রিয় চেয়ারম্যান ছিলেন। আমার ছোট ভাই সাজ্জাদ হোসেন রিয়াদ দুইবার এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন এবং সততার সাথে বর্তমানে দায়িত্ব পালন করছেন। আবুল হোসেনকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হলে নৌকা বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে ইনশাল্লাহ।’

গত শুক্রবার (৬ অক্টোবর) গলাচিপা সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক পথসভায় আবুল হোসেন সম্পর্কে গলাচিপা সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন টুটু বলেন, ‘আবুল হোসেন সাবেক বিজিবির মহাপরিচালক এবং রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব ছিলেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কাজ করেছেন।

তিনি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কাজ করেছেন। তিনি দেশের উচ্চ পর্যায় থেকে অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন। তিনি এই জনপদে এমপি হলে ফুল মন্ত্রী হবেন। তখন এই অঞ্চলে অনেক উন্নয়ন হবে। এই জন্য আমরা তার সমর্থনে কাজ করছি। গত পাঁচ বছরে আমার ইউনিয়নে তেমন কোন উন্নয়নমূলক কাজ হয় নাই। হাত কাটা, পা কাটা নিয়ে এলাকায় শুধু পঙ্গুভাতা বৃদ্ধি পেয়েছে। এতো পঙ্গুভাতা প্রধানমন্ত্রী নিজে দিয়েও শেষ করতে পারবেন না। উপজেলার সকল ইউনিয়নের চেয়ে এই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী সবচেয়ে বেশি ঐক্যবদ্ধ ও শক্তিশালী।

আবুল হোসেন নৌকা নিয়ে আসলে আমরা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী নিরলসভাবে তাঁর জন্য কাজ করবো। আমরা তাঁর জন্য দোয়া করি তিনি যেন নৌকা নিয়ে এসে আমাদের এই অবহেলিত এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে পারেন।’
পথসভায় আবুল হোসেন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর জন্য আমরা পেয়েছি একটি স্বাধীন ভূ-খন্ড ও লাল সবুজ পতাকা। আর তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদেরকে দিয়েছেন এক উন্নত বাংলাদেশ। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে উন্নত ও তথ্য প্রযুক্তি সম্পন্ন এক স্মার্ট বাংলাদেশ।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্বে ৩৫ তম অর্থনৈতিক দেশ হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছে। তলা বিহীন ঝুড়ি থেকে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল রাষ্ট্রের কাতারে চলে এসেছে। এটা আমাদের গৌরবের বিষয়। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নৌকার কান্ডারী হয়ে আমি আপনাদের পাশে থেকে উপকূলীয় অঞ্চলের অবহেলিত বানভাসী মানুষের কল্যাণে ও এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে চাই। আপনাদের ভালবাসা ও সমর্থন নিয়ে এই অঞ্চলের বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে কাজ করতে চাই। আধুনিক ও উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে কৃষি বিপ্লব ঘটিয়ে এলাকার মানুষের জীবন যাত্রার মানোন্নয়নে কাজ করতে চাই। মৎস্য শিল্পকে আরো উন্নত করতে চাই। আমাদের এই অঞ্চল নদী মার্তৃক। আমাদের অনেক জনবল, প্রচুর জায়গা আছে। শুধু প্রয়োজন দক্ষ উদ্যোক্তা ও অর্থ। এসব কাজে লাগিয়ে আমরা নিজেরাই নিজেদের ভাগ্যের পরিবর্তন করে এলাকা তথা দেশের উন্নয়নে কাজ করতে পারি।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দিয়ে আবারো আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে। দেশের শান্তি ও উন্নয়ন ধরে রাখতে হলে শেখ হাসিনা সরকারের বিকল্প নাই।’

এসময় উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, সহযোগী ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী, অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

নামাজের সময়সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫২
  • ১১:৫৮
  • ৪:৩৩
  • ৬:৪০
  • ৮:০৩
  • ৫:১৩
শিক্ষা তথ্য পত্রিকার কোন লেখা, ছবি বা ভিডিও কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: সাইবার প্লানেট বিডি