বুধবার , এপ্রিল ৮ ২০২০
সংবাদ শিরোনাম
Home » আইন-আদালত » বন্দরে পুলিশ নয় বন্ধু হিসেবে থাকতে চাই-ওসি রফিকুল ইসলাম

বন্দরে পুলিশ নয় বন্ধু হিসেবে থাকতে চাই-ওসি রফিকুল ইসলাম

শিক্ষা তথ্য নিউজঃ বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেছেন, সুন্দরের মাঝে অসুন্দর মানুষ গুলো না থাকতে পারে এজন্য আমাদের সকলকে সচেতন হতে হবে। যেখানে ডিমান্ড থাকে সেখানে যে কোন মাল বেশী বিক্রি হবে। যারা মাদক বিক্রি করে তারা আমাদের মাঝেই আছে। একজন মাদক সেবী বা বিক্রেতা শুধু পরিবার নয় সমাজের জন্য হুমকি। মাদক বিক্রেতাদের বা সেবনকারীদের সাথে আমরা কোন সম্পর্ক রাখবোনা,এমনকি কোন আতœীয়তা করবোনা বরং তাদের পারিবারিক ও সামাজিক ভাবে বয়কট করবো। তবেই মাদক বিক্রি বন্ধ হবে। তাদের জন্য কোন সুপারিশ না করতে বাড়ির মালিকদের প্রতি আহবান জানান।
শুক্রবার (২৮ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে আমিন আবাসিক এলাকার মসজিদ ও পঞ্চায়েত কমিটি আয়োজিত চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই ও বহিরাগত অনুপ্রবেশ মোকাবেলাসহ মাদক মুক্ত এলাকা গড়তে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, বন্দরে কোন মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ চলবেনা। ৭ দিনের মধ্যে ভাড়াটিয়াদের তালিকা বন্দর থানায় জমা দিতে সকলের প্রতি আহবান জানান। আমিন আবাসিক এলাকা মডেল হিসেবে পরিনত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। থানায় জিডি, অভিযোগ ও মামলা করতে কোন টাকা নেওয়া হয়না। কেউ নিলে জানাবেন ঐ পুলিশ বন্দরে থাকবেনা। মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন এক মাসের মধ্যে আমিন আবাসিক এলাকাকে মাদকমুক্ত নগরী হিসেবে ঘোষনা করবো। আমি পুলিশ হিসেবে নয় বন্ধু হয়ে থাকতে চাই। চুরি ডাকাতি, ছিনতাই, বহিরাগত  অনুপ্রবেশ ও অন্যান্য অপরাধ প্রতিরোধসহ মাদক মুক্ত এলাকা গড়তে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।
আমিন আবাসিক এলাকার মসজিদ ও পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন জেলা যুবলীগনেতা খান মাসুদ।
এ সময় সভায় বক্তব্য রাখেন বন্দর ফাঁড়ীর অফিসার ইনচার্জ রফিকুল হক, আমিন আবাসিক পঞ্চায়েত কমিটির সমাজ সেবক মোঃ লুৎফর রহমান, সহসভাপতি এসটি আলমগীর সরকার, আমিন আবাসিক মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহজাহান, সাংগঠনিক সম্পাদক জাতীয় পার্টি নেতা গিয়াসউদ্দিন চৌধুরী, সহ সভাপতি ইব্রাহীম সরকার।
আমিন আবাসিক মসজিদ কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাহবুব অর রশিদের সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন মসজিদ কমিটির কোষাধ্যক্ষ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, যুবলীগনেতা মোঃ মাসুম, শেখ মমিন,সানি,রাজু প্রমূখ।
পরিশেষে বক্তারা বলেন ১-৯ নং গলি পর্যন্ত বহিরাগতরা রাত ১২টায় হোন্ডা যোগে আসে। খালি প্লটগুলোতে ফেন্সিডিলের খালি বোতল পাওয়া যায়। রাতের বেলা নয় দিনের বেলা আমিন আবাসিক এলাকায় চুরি ডাকাতি সংঘটিত হয়। কারা বা কে করে আজো পর্যন্ত কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। বাড়ির মালিকের সন্তানরাও এর সাথে জড়িত থাকতে পারে। তাদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনে পুলিশের প্রতি জোর দাবী জানান।

আরও সংবাদ

২৫ নং ওয়ার্ডে বন্দর ব্লাড ডোনেশনের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরন

শিক্ষা তথ্যঃ করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় পরিবারের মাঝে বন্দর ব্লাড ডোনেশন …