শিক্ষা তথ্য

ভিজিডি কার্ডের তালিকাভুক্ত করার লোভ দেখিয়ে পঞ্চগড়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে টাকা নেওয়ার অভিযোগ

সাইদুজ্জামান রেজা, পঞ্চগড়ঃ পঞ্চগড় সদর উপজেলায় ভিজিডি কার্ডের তালিকাভুক্ত করার লোভ দেখিয়ে অসহায় ও দুস্থ মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে অমরখানা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান নুরু’র বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে গত ২৯ মার্চ পঞ্চগড় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী মো. তৌহিদুল হক।

লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, ভিজিডি কর্মসূচিতে তৌহিদুল হক নাম তালিকা ভূক্ত করার জন্য চেয়ারম্যানকে অনুরোধ করলে, চেয়ারম্যান জানায় নাম তালিকাভুক্ত করতে হলে টাকা দিতে হবে। সাথে সাথে তৌহিদুল চেয়ারম্যানকে ৩ হাজার টাকা প্রদান করে। টাকা দেওয়ার পাঁচ মাস পার হলেও তার নাম ভিজিডি কর্মসূচিতে তালিকাভুক্ত হয় নাই।

অভিযোগে আরো জানা যায়, গত ২৯ মার্চ চেয়ারম্যান এর বাড়িতে ভিজিডি কর্মসূচির কার্ডের বিষয়ে আলোচনা করলে চেয়ারম্যান জানায় নাম প্রতি ৫/৬ হাজার টাকা দিতে হবে। তিন হাজার টাকায় হবে না। এসময় তৌহিদুল তার দেওয়া তিন হাজার টাকা ফেরৎ চাইলে তাকে ১৫ শত টাকা ফেরৎ দেয়। বাকি ১৫ শত টাকা চাইলে চেয়ারম্যান বলে তোমাকে একটি বন্ধু চুলা দিয়েছি এই জন্য ১৫ শত টাকা কেটে নিলাম। অভিযোগের সুত্র ধরে অমরখানা ইউনিয়নে খোঁজ নিলে কয়েক জন ভয়ে বক্তব্য দিতে অনিচ্ছা প্রকাশ করলে ও জমাদার পাড়ার চম্পা বেগম জানায় ভিজিডি কার্ডের জন্য চেয়ারম্যান কে আমি ধার দেনা করে ২ হাজার টাকা দিয়েছি পরবর্তীতে ইউপি অফিসের একজন কে ১১শত টাকা সহ ৩ হাজার ১ শত টাকা দিয়েছি। কিন্তু আমাকে ও চেয়ারম্যান ভিজিডি কার্ড দেয়নি।

অমরখানা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান নুরু বলেন, অভিযোগ হয়েছে নিউজ করেন,বলেই ফোন কেটে দেন।

এ বিষয়ে পঞ্চগড় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফ হাসান বলেন, অভিযোগে পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন