‘মরীচিকা’র ট্রেলারেই তোলপাড়

বিনোদন - শিক্ষা তথ্য

‘মরীচিকা’র ট্রেলারেই তোলপাড়
‘মরীচিকা’র ট্রেলারেই তোলপাড়

ভিডিও প্ল্যাটফর্ম চরকির প্রথম অরিজিনাল ওয়েব সিরিজ ‘মরীচিকা’র ট্রেলার এসেছে। আর এসেই আলোচনায় সবখানে। ‘মরীচিকা’ নিয়ে ফেসবুক, ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোয় সিনেমা ও সিরিজপ্রেমীদের আলোচনা এরই মধ্যে জমে উঠেছে। ‘মরীচিকা’র ট্রেলারে বলা হয়েছে, সিরিজটি আগামী ঈদুল আজহা সামনে রেখে চরকির উদ্বোধনী দিনে মুক্তি পেতে পারে।


শিহাব শাহীন পরিচালিত ওয়েব সিরিজ ‘মরীচিকা’ নিয়ে গত বছর থেকে শুরু হয় আলোচনা। চরকির তারকাবহুল এই প্রযোজনায় অভিনয় করেছেন সিয়াম আহমেদ, আফরান নিশো, মাহিয়া মাহি ও জোভানের মতো তারকারা। সিরিজটি নিয়ে দর্শকের আগ্রহ দিন দিন বেড়েই চলছে। এবার এই আগ্রহের পারদ আরও চড়ল ট্রেলার প্রকাশিত হওয়ার মধ্য দিয়ে।

নির্মাতা শিহাব শাহীন জানান, এটা সবে শুরু। সামনের দিনগুলোয় ‘মরীচিকা’ আরও উত্তাপ ছড়াবে ভার্চ্যুয়াল দুনিয়ায়।

প্রায় দুই মিনিট ব্যাপ্তির এই ট্রেলারে দেখা গেছে খলরূপে নিশো, পুলিশ বেশে সিয়াম এবং এক মডেলের চরিত্রে মাহিকে। এত দিন অভিনেতা জোভানের চরিত্রটি আড়ালে থাকলেও ট্রেলারে আলো ছড়িয়েছেন তিনিও।

তিনি বলেন, ‘“মরীচিকা”র ট্রেলার রিলিজ প্রসঙ্গে সিনেমার সেই সংলাপই আমি বলতে চাই, “এটা তো শুধু ট্রেলার, সিনেমা তো এখনো বাকি আছে।” দর্শক ট্রেলারে পুরো সিরিজের একটা ঝলক দেখতে পেয়েছেন মাত্র। পুরো সিরিজে তাঁদের জন্য অনেক অনেক থ্রিল, ড্রামা আর সাসপেন্স অপেক্ষা করছে।’

‘মরীচিকা’র সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে শিহাব শাহীন আরও বলেন, সিরিজসংশ্লিষ্ট সব শিল্পী, কলাকুশলীর অক্লান্ত পরিশ্রম, নিষ্ঠা আর প্যাশনের একঝলকই দেখা গেছে এই ট্রেলারে।

প্রায় দুই মিনিট ব্যাপ্তির এই ট্রেলারে দেখা গেছে খলরূপে নিশো, পুলিশ বেশে সিয়াম এবং এক মডেলের চরিত্রে মাহিকে। এত দিন অভিনেতা জোভানের চরিত্রটি আড়ালে থাকলেও ট্রেলারে আলো ছড়িয়েছেন তিনিও।

চরকির অরিজিনাল এই ওয়েব সিরিজের শুটিং শুরু হয় গত বছরের শেষ দিকে। করোনাকালের সব ধরনের প্রতিকূলতা পেরিয়ে অবশেষে ‘মরীচিকা’ মুক্তির জন্য প্রস্তুত। বড় বাজেটের তারকাবহুল এই সিরিজ নিয়ে চরকির প্রত্যাশা অনেক।

গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় চরকির ফেসবুক পাতা ও ইউটিউব চ্যানেলে ট্রেলারটি প্রকাশ করা হয়। এর আগে ১ জুন সিরিজের গুরুত্বপূর্ণ চারটি চরিত্র নিয়ে চারটি পোস্টার প্রকাশ করা হয়। আলোচনা মূলত তখন থেকেই শুরু। ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে দর্শকের কৌতূহল ও আগ্রহ।